যুক্তি ও আবেগ

সাধারণ ভাবেই আমরা যুক্তি’র থেকে অনেক বেশি প্রাধান্য দিয়ে থাকি আবেগকে। আর এই বিষয়ে ঘরের মেয়েরা সকলের থেকে এগিয়ে। অধিকাংশ নারীকেই এই বিষয়ে যুক্তি দিয়েও বোঝানো যায় না। আবেগের সাথে তাদের নাড়ির বন্ধন এতটাই দৃঢ় যে, ঘোর বিপদের সময়েও তাঁরা আবেগকেই আঁকড়িয়ে ধরে বসে থাকবেন। তবু যুক্তির শরণাপন্ন হবেন না। হয়তো জল হাওয়া মাটি আকাশের সাথে মানুষের যে মনের বন্ধন। সেই বন্ধনই নারীর প্রকৃতিকে এমন আবেগসর্বস্ব করে তুলেছে। অধিকাংশ সময়ে অধিকাংশ মহিলাই এই আবেগের বশবর্তী হয়ে সংসারে অনেক ধরণের জটিল আবর্তে নিজে পড়ে যান। এবং ঘরের বাকিদেরকেও ঠেলে ফেলে দেন সেই জটিলতায়। যখন কোন যুক্তিই তাঁদেরকে রক্ষা করার জন্য যথেষ্ঠ হয়ে ওঠে না। নিজের ক্ষতি তো করবেনই। সাথে গোটা পরিবারেরও সর্বনাশ ঘটিয়ে ছাড়বেন। না, এমন সর্বনাশা পরিস্থিতি যে অহোরাত্র সংঘটিত হচ্ছে কিংবা হয় তেমনটি নয় আদৌ। কিন্তু যখন হয়, তার ফল হতে পারে মারাত্মক। অধিকাংশ সময়েই পরিস্থিতি হাতের নাগালের বাইরে চলে যায় না। আবেগের প্রাবল্যে যুক্তি ভেসে গেলেও, সেটি হয়তো সামাল দেওয়া যায়। কিন্তু কিছু কিছু ক্ষেত্রে যত সামাল দেওয়ার চেষ্টা করা হয়। ততই অবস্থা বিগড়ে যেতে থাকে। এবং সে রকম অভিজ্ঞতা যত কমই হোক না কেন। বিরল নয় আদৌ। আমাদের জনসংখ্যার বিপুল পরিমাণের জন্যেই শতকরা হারে চোখে পড়ে কম।

বিস্তারিত পড়ুন