একাকিত্বের ডিপ্রেশন

খুব একা লাগে যখন দেখা যায়, কেউ আমার মতোন নয়। কেউ আমার কথা বুঝছে না। খারাপ লাগাটা আরও বেড়ে যায়, যদি দেখা যায় কেউ আমার খোঁজ নিচ্ছে না। আমার কথা ভাবছে না। আমি কেমন আছি। সেই কথা জানার গরজ নেই আর কারুর। চারধারে মানুষের এই ভয়াবহ ভিড়েও যখন কোন মানুষের মনে এই কথাগুলিই উথাল পাতাল করতে থাকে। তখন বুঝতে হবে। কারণ যাই হোক না কেন। তিনি মানুষের মাঝে নিজের স্থান করে নিতে পারছেন না। আর মানুষের মাঝে নিজের স্থান করে নিতে না পারা থেকেই মানুষের ভিতরে এক একাকিত্বের জন্ম হতে শুরু করে দেয়। এই যে একাকিত্ব। অনেকেই একে মনের বিভ্রম বলে প্রথমে হেসে উড়িয়ে দিতে চান। কিন্তু খোঁজ নিয়ে দেখতে চান না। একজন মানুষ কেনই বা হঠাৎ এই একাকিত্বের কথা বলতে শুরু করবেন। নিশ্চয় কোথাও না কোথাও কোনভাবে তিনি মানুষের সমাজে একলা বোধ করতে শুরু করেছেন। শুরুর সেই সময়ে যদি সেইরকম মানুষদের পাশে গিয়ে পিঠে একটা দরদী হাত রাখা যায়। তবে ম্যাজিকের মতোই ফল ফলতে পারে। কিন্তু আমরা আমাদের পারিবারিক জীবনে সেই ম্যাজিকটা ঘটানোর সুযোগ পেলেও হাতছাড়া করি। উল্টে টেরও পাই না। কখন কিভাবে আমাদেরই ঘরের মানুষ দিনে দিনে আমাদের সাথে থেকেই একলা হয়ে পড়ছে। একাকিত্বের অন্ধকারে তলিয়ে যেতে শুরু করেছে।

বিস্তারিত পড়ুন